৩ কার্তিক ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৭ , ৫:৫৪ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Somoyer Narayanganj
organic sweets
Laisfita

না.গঞ্জে ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের সঙ্গে ‘সমঝোতা’ বিএনপির গোমর ফাঁস


২৮ মার্চ ২০১৬ সোমবার, ০৯:৫৮  পিএম

নিউজ নারায়ণগঞ্জ


না.গঞ্জে ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের সঙ্গে ‘সমঝোতা’ বিএনপির গোমর ফাঁস

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের মধ্যে তিনটি ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীরা মনোনয়ন পত্র জমা দিতে ব্যর্থ হলেও এ ব্যাপারে দলের নীতি নির্ধারকরা কোন কথা বলছেন না। এমনকি বিষয়টি নির্বাচন কমিশনকে যেমন জানানো হয়নি তেমনি কোন ধরনের বিবৃতিও দেয়া হয়নি। বরং বিএনপির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পর্দার আড়ালের সমঝোতার যে অভিযোগ সেটা আরো প্রকট হয়েছে।

রোববার ছিল সদরের ৬টি ইউনিয়নের মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। এদিন বক্তাবলী, কুতুবপুর ও আলীরটেকের বিএনপি প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দিতে পারেনি। অভিযোগ রয়েছে, এসব প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র কেড়ে নেওয়া হয়েছে। কারো কারো বাড়িতে আগের দিন রাতে গিয়েই দেওয়া হয়েছে হুমকি।

এ অবস্থায় এসব প্রার্থীদের অভিভাবক খ্যাত বিএনপির পদধারীদের কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি। একদিন পেরুলেও সোমবার অবধি কেউ কোন প্রতিবাদ দেয়নি। গণমাধ্যম কর্মীদের বিষয়টি নিয়ে কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি। বরং পেছনে পেছনে বিএনপির নেতারা এ নিয়ে খুব ‘খুশী’ ও আওয়ামী লীগকে ‘তুষ্ট’ করতে পেরেছে ভেবে নিজেদের গর্ববোধ করছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সদরের ৬টি ইউনিয়নের মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে ‘মোড়ল’ ও ‘মাতব্বরি’ ভূমিকাতে ছিলেন ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি শিল্পপতি শাহআলম ও সেক্রেটারী আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস। এ দুই জনের বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নাই। কারণ বিগত দিনে আন্দোলন সংগ্রামের একটিতেও এ দুইজনকে দেখা মেলেনি। বরং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে বসে রাজনীতি করা এ দুইজনের বিরুদ্ধে কোন ধরনের মামলাও হয়নি।

বরং দুইজনই আওয়ামী লীগের এমপি ও আওয়ামী লীগের রাজনীতিকদের ‘তোষণ’ ও পদলেহনেই বেশী ব্যস্ত ছিলেন। আর আওয়ামী লীগের সঙ্গে তাদের পূর্ব সমঝোতার বিষয়টিও খোলাসা।

জানা গেছে, শুরু থেকেই প্রার্থী প্রদান নিয়ে এ দুইজনের বিরুদ্ধে নানা ধরনের অভিযোগ উঠে। এ দুইজন শুরু থেকে নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলোচনা করলেও শক্ত প্রার্থী দেওয়ার ক্ষেত্রে দুইজনই ছিলেন বেশ নমনীয়। তারা শুরু থেকেই চেয়েছিলেন দুর্বল প্রার্থী দিয়ে আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের সঙ্গে সমঝোতাকারীদের সেক্রিফাইস করতে।

এসব কারণে এনায়েতনগরে খুবই দুর্বল প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছেন তারা। এখানে হাবিবুর রহমান লিটন মনোনয়ন চাইলেও তাকে দেওয়া হয়নি। এখানে সাবেক চেয়ারম্যান নাসিরউদ্দিনের ছেলে অ্যাডভোকেট জাহিদ হাসান রুবেল দলের মনোনয়ন চাইলেও তার চেয়ে অনেক দুর্বল প্রার্থী অ্যাডভোকেট আলমগীরকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। কুতুবপুরের বর্তমান চেয়ারম্যান মনিরুল আলম সেন্টুকে মনোনয়ন না দিয়ে দ্বিতীয়বার লুৎফর রহমান খোকাকে মনোনয়ন দেওয়া হলেও শেষে সমঝোতা করে সেখানে মনোনয়ন দেওয়ায় হয় আকবরকে যিনি পরে নিজেও মনোনয়ন পত্র জমা দেয়নি।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, বক্তাবলী ইউনিয়নে দুইজন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত আলী ও বিদ্রোহী প্রার্থী ইলিয়াস। এদিকে বক্তাবলীতে বিএনপির প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দেয়নি।

আলীরটেকে দুইজন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের মতিউর রহমান মতি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সায়েম আহমেদ।

গোগনগরে চারজন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এর হলেন আওয়ামী লীগের জসিমউদ্দিন, বিএনপির নজরুল ইসলাম সরদার। এছাড়া স্বতস্ত্র প্রার্থী দুইজন হলেন নওশেদ আলী ও ফজর আলী।

কুতুবপুর ইউনিয়নে ৫জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা মনিরুল আলম সেন্টু, আওয়ামী লীগের গোলাম রসুল শিকদার, স্বতন্ত্রী এস এম কাদির, সৈয়দ আলী মোস্তফা ও ইঞ্জিনিয়ার আবু তালেব। এ ইউনিয়নে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী আলী আকবর মনোনয়ন পত্র জমা দেয়নি। তার অভিযোগ, রোববার দুপুরে তিনি মনোনয়ন পত্র দাখিল করার সময়ে প্রতিপক্ষের লোকজন মনোনয়ন পত্র কেড়ে নিয়েছে। বিষয়টি তিনি দলের নেতাদের অবহিত করেছেন।

এনায়েতনগরে ৮জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের আসাদুজ্জামান, বিএনপির মাহামুদুল হক আলমগীর, স্বতন্ত্র হাবিবুর রহমান লিটন, আবদুস সালাম, বদিউল আলম, মতিউর রহমান প্রধান।

কাশীপুরে ৪জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফউল্লাহ বাদল, বিএনপির ওমর আলী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের ওসমান গনি ও স্বতস্ত্র ফারুক হোসেন।


নিউজ নারায়াণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

Shirt Piece
রাজনীতি -এর সর্বশেষ