৩ কার্তিক ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৭ , ৬:০২ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Somoyer Narayanganj
organic sweets
Laisfita

মুক্তিযোদ্ধাদের কর মওকুফের সনদ ‘আমি অন্যায়ের বিপক্ষেই: আইভী’


২৮ মার্চ ২০১৬ সোমবার, ০৯:৪৯  পিএম

নিউজ নারায়ণগঞ্জ


মুক্তিযোদ্ধাদের কর মওকুফের সনদ ‘আমি অন্যায়ের বিপক্ষেই: আইভী’

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডের ৮২৯ জন মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে আজীবনের জন্য কর মওকুপের সনদ প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নগর ভবনের সামনে এক অনুষ্ঠানে ওই সনদ ও মুক্তিযোদ্ধাদেরকে উত্তরীয় পড়িয়ে দেওয়া হয়। তখন মুক্তিযোদ্ধাদের আবেগ আপ্লুত বক্তব্য ও ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগানে এক ভিন্ন পরিবেশের সৃষ্টি হয় পুরো অনুষ্ঠান জুড়ে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ২০০৭ সালে পৌরসভার দায়িত্বে থাকাকালে তখন আমি মুক্তিযোদ্ধাদের ট্যাক্স মওকুফ করেছিলাম। তখন বাংলাদেশের কোথাও এমনটি করা হয়নি। এমনকি মন্ত্রণালয়ও এ বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত দিতে পারেনি। আমাকে তখন শুনতে হয়েছে আমাকে মামলার আসামী হতে হবে। আমি মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান হিসেবে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানার্থে জেলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত ছিলাম। ওই সময়ে আমরা ৩২০ জন মুক্তিযোদ্ধা যাদের নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা এলাকায় বাড়ি ছিল তাদের ট্যাক্স মওকুফ করেছিলাম। আমাদের দেখে গাজীপুর পৌরসভা উদ্যোগ নিয়েছিল। বহু পরে মুক্তিযোদ্ধাদের কর মওকুফের বিষয়টি সরকার কর্তৃক আলোচনায় আসে। আমরা বিভিন্ন স্থানে যে দোকান নির্মাণ করেছি সেখানেও সরকারের নির্দেশ মোতাবেক সরকারী দর অনুযায়ী মুক্তিযোদ্ধাদের সুবিধা দেয়ার চেষ্টা করেছি। বিভিন্ন স্থানে মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষাসৈনিকদের নামে সড়কের নামকরণ করেছি। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য মাসদাইর পৌর কবরস্থানে পৃথক জায়গা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। আমি জানি এটা আপনাদের জন্য কিছু না। আমরা সিদ্ধিরগঞ্জ কদমরসুল কবরস্থানেও পৃথক জায়গা রাখার চেষ্টা করবো। মুক্তিযোদ্ধাদের সুযোগ সুবিধা দেয়ার চেষ্টা করবো। বাংলাদেশ সরকার যে ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার। আমাদের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আমি জানিনা আপনাদের জন্য কতটুকু করতে পেরেছি। কিন্তু আলী আহাম্মদ চুনকার সন্তান হিসেবে ছোটবেলা থেকে যা শিখেছি তা হল অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা, ন্যায়ের পক্ষে থাকা, মা বাবা মানুষের সেবা করা। রনাঙ্গনের একজন যোদ্ধার সন্তান হিসেবে আমি চেষ্টা করেছি আপনাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে। যদি এর মধ্যে কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে আমাকে ক্ষমা করবেন।



আইভী বলেন, ২০০৩ সালে পৌরসভা নির্বাচনের আগে আমি নিউজিল্যান্ডে ছিলাম। তখন দেশে আসার পরে দল থেকে আমাকে নমিনেশন দেয়া হলে আলী আহাম্মদ চুনকার মেয়ে হিসেবে আপনারা আমাকে নির্বাচিত করেছিলেন। ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জবাসী যেভাবে আমার পাশে দাড়িয়েছিল জীবনের বিনিময়ে সে ঋন পরিশোধ করতে পারবোনা। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি অসীম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ২০১১ সালে সিদ্ধিরগঞ্জ, কদমরসুল ও নারায়ণগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধারা একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের পাশে যেভাবে দাড়িয়েছিলেন তারই ফলশ্রুতিতে আমি মেয়র হতে পেরেছি। ওই নির্বাচন ছিল গণতন্ত্র বিজয়ের নির্বাচন। আমি সবসময় সত্যে পক্ষে থাকতে চাই। অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে চাই। আপনাদের দোয়া চাই। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বাবার মতো মানুষের সেবা করে যেতে চাই। মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষা সৈনিক বীরদের প্রতি জানাচ্ছি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলী।

সংবর্ধনায় নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর ও সদর এলাকার মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমা-ার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


নিউজ নারায়াণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

Shirt Piece
মহানগর -এর সর্বশেষ