৩ কার্তিক ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৭ , ৫:৪৮ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Somoyer Narayanganj
organic sweets

দেশের প্রথম সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়েছিল না.গঞ্জে

দেশের প্রথম সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়েছিল না.গঞ্জে

`১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতার ঘোষণার পরদিন ২৭ মার্চ পাক হানাদার বাহিনী সমরাস্ত্র নিয়ে নারায়ণগঞ্জে প্রবেশের সময়ে সদর উপজেলার ফতুল্লার মাসদাইর এলাকায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের প্রবল বাধার সম্মুখীন হয়ে পিছু হটে। প্রায় ২৪ ঘণ্টারও বেশী সময় ধরে প্রতিরোধের কারণে শহরে প্রবেশে ব্যর্থ হয় পাক বাহিনী। এসময় পাক বাহিনীর সঙ্গে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মুখ যুদ্ধে দুই পাক হানাদার সহ ১০-১২ জন মারা যায়। এটাই দেশের প্রথম সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ। জানাগেছে, ২৫ মার্চ রাতে ঢাকায় নিরীহ জনতাকে হত্যার খবরটি দ্রুতই পৌঁছে যায় নারায়ণগঞ্জে। ২৬ মার্চ সকাল থেকে ২৭ মার্চ দুপুর পর্যন্ত সমগ্র শহর আতঙ্কগ্রস্ত থাকে। সবার মাঝেই বদ্ধমূল ধারণা ঢাকার পরই পাকবাহিনী নারায়ণগঞ্জে আক্রমণ চালাবে। এটা ভেবে বহু পরিবার শহর ছেড়ে চলে যেতে শুরু করে। তবে ভীত না হয়ে পাকবাহিনীকে ঠেকিয়ে দেয়ার পরিকল্পণা করতে থাকে আওয়ামী লীগ ও ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের নেতারা। তাঁরা ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রোডের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। নেতারা ফতুল্লা, পঞ্চবটি এলাকার স্থানীয় নেতাদের নির্দেশ দেয় পথে গাছ কেটে ফেলে রেখে দেওয়ার জন্য। বীর জনতা নেতাদের নির্দেশ সেদিন অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছিল। এছাড়াও স্টেশন থেকে ওয়াগন এনে চাষাঢ়া রেল গেট, ২নং রেল গেট এলাকায় ব্যারিকেড সৃষ্টি করা হয়েছিল।

এক্সক্লুসিভ -এর সর্বশেষ