কালো পোশাকে সাদা মানুষের বিদায়

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০৭ পিএম, ১৮ মে ২০২০ সোমবার

কালো পোশাকে সাদা মানুষের বিদায়

‘কি দিন আর কি রাত, কখনো তপ্ত রোদ আবার কখনো ঝড়ো বৃষ্টিতে, কখনো নিজের কাঁধে নিয়ে আবার কখনো সহকর্মীদের দিয়ে, কখনো কালো পোশাকে আবার কখনো সাদা পোশাকে এ দুর্যোগকালীন সময়ে অসহায় অনহারী মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) আলেপ উদ্দিন। একেক করে যখন র‌্যাব সদস্যরা এ করোনা যুদ্ধে গিয়ে আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে যাচ্ছিলেন তখনও থেমে যায়নি। এতো কিছু করেও প্রাপ্তি হিসেবে খুঁজেছেন অনাহারী বাবা মায়ের এক চিলতে হাসিতে।

উল্লেখ্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় র‌্যাবের ভূমিকা সর্বদায়ই প্রশংসার দাবিদার। দেশের অভ্যন্তরে অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে সুরক্ষা, চোরাচালান প্রতিরোধ, নারী-শিশু ও মাদক পাচার সহ যেকোন ধরনের অপরাধ প্রতিরোধের পাশাপাশি শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে। যুদ্ধ ঘোষণা করে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গী দমনে র‌্যাব সার্বক্ষনিক যুদ্ধ করে যাচ্ছে।

কিন্তু সম্প্রতি নতুন করে র‌্যাব সদস্যদের যুদ্ধ করতে হচ্ছে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে, মানুষের সচেনতা রক্ষায়, অনাহারী মানুষের মুখে খাবার পৌছে দিতে, অতিরিক্ত মুনাফার লাভের অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে। আর সেইসব ক্ষেত্রেই ১০০ ভাগ দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা।

র‌্যাব মানেই আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সব থেকে কঠোর ও নিয়ম নিষ্ঠাবান সদস্য। যাদের সব সময়ই অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর হতেই দেখা যায়। যাদের ভয়ে নগরবাসী সব সময় আইন মেনে চলাফেরা করেন। যেকোন অপরাধ কিংবা অবৈধ কাজ থেকে দূরে থাকেন। সেই কালো পোশাকধারী কঠিন র‌্যাবের করোনা দুর্যোগে এমন বিরল দৃশ্য যা কখনো মানুষ কল্পনাও করতে পারেনি নগরবাসী।

র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক থেকে শুরু করে সিনিয়র অন্যান্য কর্মকর্তা সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করে গিয়েছেন অসহায় মানুষের জন্য। সেই সকল সদস্যদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ও যার নাম সর্বদাই অসহায় মানুষের মুখে আসে তিনি হলেন র‌্যাব-১১ এর আলেপ উদ্দিন। কিন্তু সেই আলেপ উদ্দিন নিজেই নিজেকে অসহায় মানুষের সেবক হিসেবে পরিচয় দিতে সাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

অসহায় ও অনহারী মানুষেরা বলেন, ‘র‌্যাব দেখলেই একটা কেমন যেন ভয় কাজ করতো। এ না বুঝি কোন অপরাধে শাস্তি দিলো। অপরাধীদের ধরতেই একমাত্র র‌্যাব মহল্লায় কিংবা বাড়িতে যেতে দেখা যায়। তাছাড়া এমনিতে র‌্যাব কখনো আসে না। আর এখন সেই র‌্যাব কিনা আমাদের খাবারের জন্য কাধে করে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে বাসায় আসছে। একটুও না বসে বাড়ি বাড়ি রাতের অন্ধকারে, কাঁদার মধ্যে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে। শুধু যে বড়দের জন্য এমনটা নয়। শিশুদের জন্য দুধের টাকা, বয়স্কদের জন্য ওষুধের টাকাও দিচ্ছেন। এটা সত্যিই অকল্পনীয়। র‌্যাবের এ মহানুভবতা আমরা কোন দিন ভুলতে পারবো না।’

তারা বলেন, ‘র‌্যাবের আলেপ স্যার মায়েদের কথা চিন্তা করে রোদ বৃষ্টিতেও খাবার পৌঁছে দিয়েছেন। বার বার বলেছেন যেকোন সমস্যায় জানাতে। আমরা না চাইতেই এতো কিছু পেয়েছি আর কি জানাবো।’

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের অ্যাকাউন্টে আলেপ উদ্দিন স্ট্যাটাস দেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আমি জানি, সময় শেষের দিকে আর হয়ত দুই চারদিন, আর কখনো এতসংখ্যক মানুষের পাশে এই রকম দুর্যোগে দাড়াতে পারব কিনা জানা নেই আমার। প্রায় ৮ হাজার জনক-জননী তাদের সন্তানদের মুখে যে সাময়িক হাসি ফুটিয়েছে , সেই আনন্দই আমার চরম তৃপ্তি। শেষ সময়ের স্মৃতিগুলো হয়ত মধুর হয়ে থাকবে, এটাই প্রাপ্তি ‘

তিনি আরো উল্লেখ্য করেন, ‘ধন্যবাদ জানাই আমার অধিনায়ক মহোদয়, আমার এডিজি অপারেশন স্যার, পরিচালক লিগাল মিডিয়া স্যার ও সকল সাংবাদিক বন্ধুকে। আমাকে উৎসাহ প্রদানের জন্য। এ সময় আমার পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানাই মডেল গ্রুপ, আরকে গ্রুপ, প্রাণ গ্রুপ, ইস্কয়ার নিট, নিট কনসার্ন সহ ব্যক্তি পর্যায়ের অসংখ্য শুভাকাক্সক্ষীকে।’

এ স্ট্যাটাসে বেশ কিছু অক্ষেপের বিষয় উল্লেখ থাকলেও সেসব বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি আলেপ উদ্দিন। তিনি সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন। সবাইকে করোনার স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবান জানান।

আলেপ উদ্দিন বলেন, ‘আমি যেসব ত্রাণ সামগ্রী দিয়েছি সেগুলো শুভাকাংখীরা সহযোগিতা করেছে। একজন সেবক হিসেবে সেইসব ত্রাণ সামগ্রী অসহায় মানুষের কাছে পৌঁছে দিয়েছি মাত্র। আর কোন কিছুই না।’

তবে আলেপউদ্দিন নারায়ণগঞ্জ র‌্যাবে নাই। ১৮ মে ফেসবুকে তিনি সেই বিদায়ের ঘণ্টার বিষয়টি নিজেই লিখেছেন। বলেছেন, ‘বিদায় নারায়ণগঞ্জ : তোমারে যা দিয়েছি সে তোমারি দান, গ্রহণ করেছ যত ঋণী তত করেছ আমায়। হে বন্ধু, বিদায়। ভাল থেকো নারায়ণগঞ্জ, ভাল থাকুক প্রিয় নারায়ণগঞ্জবাসী। আমি আমার সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করেছি আপনাদের পাশে থাকার, বিপদের সাথী হবার। এর থেকে বেশি আর কিছুই বলতে পারছি না। করোণাকালে প্রিয়মুখগুলো, যারা আমার জন্য রাতভর অপেক্ষা করে, ভীষন রকম খারাপ লাগবে তাদের জন্য। গুড বাই নারায়ণগঞ্জ।’


বিভাগ : ফিচার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও