গণহত্যায় শহীদ পরিবারের মাঝে ছাত্র ফেডারেশনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:৫৭ পিএম, ২৩ মে ২০২০, শনিবার
গণহত্যায় শহীদ পরিবারের মাঝে ছাত্র ফেডারেশনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ

নারায়ণগঞ্জের বক্তাবলী অঞ্চলে একাত্তরের গণহত্যায় শহীদ হওয়া পরিবারগুলোর মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা।

২৩ মে শনিবার সকাল ১১টায় ঈদ সামগ্রী বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি শুভ দেব, অর্থ সম্পাদক ফারহানা মানিক মুনা, মহানগর কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক তাকবীর হোসেন, সম্পাদক ইমরান হোসেন জাহিদ সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

১৯৭১ সালের ২৯ মার্চ তারিখ নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে একটি কালো দিন। সেদিন রাতে পাকিস্তানি মিলিটারি বাহিনী নির্মম গণহত্যা চালায় নারায়ণগঞ্জের বক্তাবলী-আলীরটেক অঞ্চলের প্রায় ২২টি গ্রামে। শহীদ হন ১৩৯ জন মানুষ। পাশাপাশি হাজার হাজার মানুষের ঘরবাড়ি আগুনে জ্বালিয়ে দেয় মিলিটারি বাহিনী। বক্তাবলী গণহত্যা ইতিহাসে আলোচিত হলেও এই শহীদদের কারো কোন প্রকার প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি নেই। যার ফলে স্বাধীনতার এতোগুলো বছর পরেও অবহেলিত হচ্ছে শহীদের পরিবারগুলো।

ঈদ সামগ্রী বিতরণকালে শুভ দেব বলেন, দিন যতো যাচ্ছে দেশে করোনা পরিস্থিতি ততোই ভয়ংকর হয়ে উঠছে। একদিকে মানুষের মনে ভয়ভীতি যেমন বাড়ছে তেমনি প্রয়োজনীয় অর্থ সঞ্চিত না থাকার ফলে পেটের ক্ষুধাই এখন প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে মানুষকে ঝুঁকি নিয়েই ফিরতে হচ্ছে কর্মস্থলে। মহামারী ছড়িয়ে পড়বার আশংকাও বেড়ে যাচ্ছে দ্বিগুণ মাত্রায়। কিন্তু কোন কিছুরই সুরাহা হচ্ছে না। অথচ রাত পোহালেই ঈদ। এমতবস্থায় সামর্থ্যবান মানুষদের প্রতি আমরা ছাত্র ফেডারেশনের পক্ষ থেকে আহ্বান জানিয়েছিলাম এবছর ঈদের যাকাত-ফেতরার অর্থ আমাদেরকে দেবার জন্য। ঈদ শপিংয়ের খরচ কমিয়ে এনে, অন্যান্য ব্যয় কিছুটা কম করে মানুষের পাশে দাঁড়াবার জন্য। সামর্থ্য ভাগাভাগি করবার জন্য। আর এই আহ্বানে আমরা বরাবরের মতোই অভূতপূর্ব সাড়া পেয়েছি। স্বাধীনতার সংগ্রামের যে মানুষগুলো জীবন দিলেন। যাদের রক্তের উপর দাঁড়িয়ে এদেশ সেই শহীদ পরিবারগুলোর পাশে আমরা দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি।

তিনি আরো বলেন, দেশে করোনা পরিস্থিতি শুরু হবার পর থেকেই আমরা ধারাবাহিকভাবে মাঠে আছি। মাস্ক বিতরণ, হ্যান্ড ওয়াশ বিতরণ, সচেতনতামূলক দূরত্ব বৃত্ত অঙ্কন, জীবানু নাশক স্প্রে করা, ত্রাণ কার্যক্রমসহ নানানভাবে আমরা আমাদের কার্যক্রম জারি রেখেছি। এই দুর্যোগকালের সমাপ্তি না হওয়া পর্যন্ত আমরা মাঠে থাকবো। নারায়ণগঞ্জবাসীর কাছে এটা আমাদের অঙ্গীকার। প্রায় আড়াই মাস ধরে চলা তাদের এই ভলেন্টারি ওয়ার্কে যাদের সবসময় পাশে পেয়েছেন, যারা সাহস যুগিয়েছেন তাদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর