সমবায় মার্কেটে অবৈধ পথে ক্রেতাদের আনাগোনা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৩৫ পিএম, ২১ মে ২০২০ বৃহস্পতিবার

সমবায় মার্কেটে অবৈধ পথে ক্রেতাদের আনাগোনা

নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় অবস্থিত সমবায় মার্কেটে জীবানুনাশক ট্যানেল কার্যত অর্থে কোন কাজে আসছেনা। ট্যানেল ব্যবহারের জন্য মার্কেটের চারদিকে ব্যারিকেড দিলেও তা দিয়ে অনায়াসে যাতায়াত করতে পারছে ক্রেতারা। এর ফলে ভাইরাস প্রতিরোধের প্রচেষ্টা বিফলে যাচ্ছে। আর তাতে করে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের শঙ্কা বাড়ছে।

২১ মে বৃহস্পতিবার বিকেলে সমবায় মার্কেটের দক্ষিণ পাশ দিয়ে ব্যারিকেট ডিঙিয়ে ক্রেতাদের যাতায়াত করতে দেখা গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, মার্কেটের সম্মুখভাগে ট্যানেল স্থাপন করা হয়েছে। ট্যানেল ব্যবহার করে কিছু সংখ্যক ক্রেতা মার্কেটে প্রবেশ করছে। তবে অধিকাংশ ক্রেতারা ব্যারিকেড ডিঙিয়ে দক্ষিণ পাশ দিয়ে প্রবেশ করছে। দক্ষিণ পাশ দিয়ে ব্যারিকেটের নাজুক অবস্থার কারণে সেখান দিয়ে ক্রেতারা অনায়াসে যাতায়াত করতে পারছে। এতে করে জীবানুনাশক স্প্রে ছাড়া ক্রেতারা দেদারসে মার্কেটে প্রবেশ করছে। বাঁশ ও দড়ি দিয়ে ব্যারিকেড দেয়া হয়েছে। নড়বড়ে ব্যারিকেডের দূরত্ব বেড়ে দিয়ে বিশাল ফাঁকা তৈরি হয়েছে যা দিয়ে ক্রেতারা অনায়াসে প্রবেশ করতে পারছে। নারী, পুরুষ, শিশু সহ বিভিন্ন বয়সের ক্রেতারা এই ব্যারিকেট ডিঙিয়ে আনাগোনা করছে।

ট্যানেলের পাশে অবস্থানকারী কর্মকর্তারা বলছেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জীবানুনাশক ট্যানেল স্থাপন করা হয়েছে। ট্যানেল ব্যবহারের জন্য মার্কেটের চারদিকে ব্যারিকেড দেয়া হয়েছে। যাতে করে সবাই ট্যানেল ব্যবহার করে। কিন্তু অনেকে ট্যানেল ব্যাবহারে অনিচ্ছা প্রকাশ করছে। এটা মোটেও ঠিক নয়।

ক্রেতারা বলছেন, ট্যানেল ব্যবহার করতে অনেকদূর ঘুরে যেতে হয়। তাই সময় বাঁচাতে এই পথ ব্যবহার করছি। পুরো মার্কেট জুড়ে করোনা ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। ট্যানেল দিয়ে কতটুকু দূর করা সম্ভব। তাছাড়া মার্কেটের ভেতরে কেউ সামাজিক দূরত্ব মানছেনা। সেখানে সংক্রামণের শঙ্কা সবচেয়ে বেশি। সেসব কেউ দেখছেনা।

এর আগে স্বাস্থ্যবিধি অমান্যের কারণে সমাবয় মার্কেট বন্ধ করে দেয়া হয়। পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আশ্বাসে এবং ট্যানেল স্থাপনের মধ্য দিয়ে মার্কেট খুলে দেয়া হয়। কিন্তু এবার ভিন্ন চিত্র দেখা যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশেই দোকানপাট ও বিপণিবিতান বন্ধ রাখার পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জেও দোকানপাট ও বিপণিবিতানগুলো বন্ধ রয়েছে। এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত সোমবার ঈদের কেনাকাটার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিতভাবে দোকানপাট খোলা হবে বলে জানান। যার সূত্র ধরে ১০ মে থেকে বিপণিবিতান খুলে দেওয়ার আনুষ্ঠানিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও