ঘরোয়া চিকিৎসায় যেভাবে করোনামুক্ত একই পরিবারের ৯ জন সুস্থ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৬ পিএম, ২৬ মে ২০২০ মঙ্গলবার

ঘরোয়া চিকিৎসায় যেভাবে করোনামুক্ত একই পরিবারের ৯ জন সুস্থ

সম্পূর্ণভাবে ঘরোয়া চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে একই পরিবারের করোনায় আক্রান্ত ৯ জন। ঠান্ডা খাবার ও পানি পরিহার করে আদা, এলাচি, লং ও লেবুসহ বিভিন্ন রকমের মসলা দিয়ে পানি গরম করে খেয়ে, দিনে ১০/১৫ বার কুলকুচি ও গরম পানির ভাব নিয়ে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

মঙ্গলবার (২৬) মে দুপুরে তাদের মোবাইলে করোনা নেগেটিভ এর এসএমএস আসে বলেন জানিয়েছেন, নাসিক সিদ্ধিরগঞ্জের ৩নং ওয়ার্ডের সানারপাড় মোল্লা বাড়ীর বাসিন্দা মো মহিউদ্দিন মোল্লা। তিনি বলেন, আমরা শুধু ডাক্তারের পরামর্শে ভিটামিন-সি ও ভিটামিন-ডি ছাড়া অন্য কোন সেবন করতে হয় নি।

এর আগে গত ৬ মে মহিউদ্দিন মোল্লার ছোট ভাই জসিম উদীন মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর একদিন পর জসিম উদীনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে। পরবর্তীতে ৯ মে তাদের পরিবারের (২২ সদস) সবাই করোনার পরীক্ষা করান। ১৩ মে বুধবার তাদের সবার পরীক্ষার রিপোর্ট আসে। সেখানে তাদের পরিবারের ৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

আক্রান্তদের মধ্যে ৩ ও ১১ বছরের দুজন শিশুও ছিল, বাকি ৭ জনের মধ্যে একজনের বয়স ২৭, একজনের ২৮, একজনের ৩২, দুইজনের ৩৫, একজনের ৩৮ বছর।

তাদের কোনো ধরনের উপসর্গও ছিল না তারা সবাই সুস্থ ছিলেন বলে জানিয়ে মহিউদ্দিন মোল্ল বলেন, মহামারি করোনায় হঠাৎ আক্রান্ত ছোট ভাইয়ের মৃত্যু ও পরিবারের ৯ জন করোনা পজেটিভ হওয়ায় আমি মহাসংকটে পড়ে যাই। এবং সকলের মধ্যে চরম আতংক ও উৎকন্ঠা দেখা দেয়। আমরা অনেকটা দিশাহারা হয়ে যাই। এমতাবস্থায় মহান আল্লাহ তায়ালার নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করে তার সাহায্য প্রার্থনা করি। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জেনসহ আমাদের পারিবারিক ডাক্তারদের পরামর্শে ঠান্ডা খাবার ও পানি পরিহার করে আদা, এলাচি, লং ও লেবুসহ বিভিন্ন রকমের মসলা দিয়ে পানি গরম করে প্রতি দিন ১০/১৫ বার খেয়েছি। দিনে ১০/১৫ বার কুলকুচি করেছি। এবং দিনে কয়েকবার গরম পানির ভাব নিয়েছি। এসময় প্রচুর পরিমাণের মাল্টা ও লেবু খেয়েছি। এভাবেই আমাদের পরিবারের সবাই সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠেছি।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও