সোজা কথা বাইরে যেতে চাইলে সেখানেই বসিয়ে রাখা হবে (ভিডিও)

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৪:২১ পিএম, ২০ মে ২০২০ বুধবার

সোজা কথা বাইরে যেতে চাইলে সেখানেই বসিয়ে রাখা হবে (ভিডিও)

বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বলেছেন, এই করোনা দুর্যোগ শুরু হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশ পুলিশ তাঁর সীমিত সামর্থ্য অনুযায়ী বাংলাদেশের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছে। আমরা রাস্তায় জীবাণুনাশক ছিটানো থেকে শুরু করে মানুষের বাসায় ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া, অসুস্থ মানুষকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া, এমনকি যারা মারা গেছেন তাঁদের আত্মীয় স্বজন কাছে আসেননি আমাদের অফিসাররা গিয়ে জানাযা দিয়েছে এবং কবর দিয়েছে। এই দুর্দিনে বাংলাদেশ পুলিশ প্রমাণ করেছে যে আমরা প্রকৃত পক্ষে মানুষের বন্ধু হতে চাই, দুর্দিনে তাঁদের পাশে দাঁড়াতে চাই।’

২০ মে বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের মানবিক উদ্যোগে বাস ও লেগুনা ড্রাইভারদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা শফিকুল ইসলাম।

এসময় তিনি আরো বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের আহ্বান জানিয়েছেন যে আমরা যে যেখানে থাকি সেখান থেকেই যেন ঈদ পালন করি। কিন্তু আমরা দেখছি শত শত হাজার হাজার মানুষ এই অনুরোধ উপেক্ষা করে। গতকালকে আমাদের আইজিপি মহোদয় ঘোষণা দিয়েছেন কাউকে বাড়িতে যেতে দেওয়া হবে না।

তিনি বলেন, আমার কাছে আমার সন্তান যেমন প্রিয় তেমনি আমার মা বাবাও তেমন প্রিয়। কিন্তু ঢাকা কিংবা নারায়ণগঞ্জ থেকে গিয়ে কেন আমার সন্তানকে আমি বিপদের মধ্যে ফলবো? কেন আমি আমার বৃদ্ধ বাবা মাকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিবো? আমরা যথেষ্ট চেষ্টা করে যাচ্ছি সমস্ত রাস্তাঘাট বন্ধ করে দিয়েছি। কোন যানবাহন চলছে না। তারপরেও ১০-১৫ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে মানুষ বাড়িতে যাচ্ছে। আমি সবাইকে অনুরোধ করব, আপনি হয়তো দুইটা দিন বাড়িতে গিয়ে একটু আনন্দ করবেন। কিন্তু আপনার এই দুইদিনের আনন্দের জন্য হয়তো সারা জীবনের কান্না আপনার সাথে থেকে যেতে পারে।

‘আপনার বাবা অসুস্থ হতে পারে, আপনার বৃদ্ধ মা অসুস্থ হতে পারে। বৃদ্ধ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হতে তাঁদের বাঁচানো কিন্তু খুব কঠিন। আমি অনুরোধ করব এই একটা ঈদ আমরা এখানেই করব। সামনের ঈদে ইনশাআল্লাহ পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদ পালন করবো। পরিবার সন্তানের এই একটা ঈদে আপনারা ঘরে থাকুন। যে যেখানে আছেন সেখানে থাকুন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। এতে নিজের, পাড়া-প্রতিবেশি সকলের কাজে লাগবে। এটা যদি না মানেন আপনি যেমন বিপদে পরবেন আপনার আশেপাশে যারা আছেন সবাইকে বিপদে ফেলবেন।’

ঈদকে কেন্দ্র করে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে কোন ধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে? সাংবাদকের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নিরাপত্তার জন্য কোনো ব্যবস্থা না। আমরা চাচ্ছি, সোজা কথা কেউ বাইরে যেতে চাইলে তাঁকে সেখানে বসিয়ে রাখা হবে। এমনও হতে পারে তাঁর ঈদ রাস্তায় বসে কাটাতে হতে পারে। ঢাকা কিংবা নারায়ণগঞ্জ থেকে আমরা কাউকে বাড়িতে যেতে দিবো না। আমরা এ বিষযে কঠোর থাকবো।’

অনুষ্ঠানে পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনিরুল ইসলাম, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান। এ ছাড়া পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিন ১ হাজার শ্রমিকের মাঝে ঈদ উপলক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এ কার্যক্রম নিয়মিত অব্যাহত থাকবে বলে পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও