করোনার ধাক্কায় জামাত আয়োজন শূন্য নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ভিডিও

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৪ পিএম, ২১ মে ২০২০ বৃহস্পতিবার

করোনার ধাক্কায় জামাত আয়োজন শূন্য নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ভিডিও

২০১৮ সালে ঈদুল আজহার আগে নারায়ণগঞ্জ জেলার প্রায় ৭’শতাধিক আলেম ওলামার সঙ্গে বৈঠক করে নারায়ণগঞ্জে বৃহৎ ঈদ জামাতের ঘোষণা দিয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান। সেই ঘোষণার ধারাবাহিকতায় ২০১৯ সালে নতুনত্ব এনে চিরাচরিত বাঁশের প্যান্ডেলের পরিবর্তে মদিনা শরীফের আদলে আধুনিক প্রযুক্তির তাবু টাঙিয়ে আয়োজন করা হয় নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে বৃহত্তর ঈদ জামাত যেখানে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা এসে ঈদের জামাতে অংশ নেয়।

তবে দুই বছর ধরে আয়োজিত নারায়ণগঞ্জের বৃহত্তর ঈদ জামাত আদায় করতে পারলেও এবার সেই সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে নারায়ণগঞ্জবাসী। কারণ প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ঈদগাহ ময়দানে আয়োজন করা হচ্ছে না নারায়ণগঞ্জের বৃহত্তর ঈদ জামাত। যে কারণে নরায়ণগঞ্জবাসীকে এবার নিজ নিজ মহল্লার মসজিদেই আদায় করতে হবে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ।

গত দুই বছর ধরে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দান ও পাশেই অবস্থিত সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্স মাঠে একযোগে আয়োজন করা হতো ঈদের নামাজ। বৃহত্তর এই ঈদ জামাতে অংশ নিতে নারায়ণগঞ্জ জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মুসল্লিরা ছুটে আসতো। মুসল্লির সংখ্যা এত বেশি হতো যে দুই মাঠ ছাড়াও এর আশপাশের এলাকা এবং ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে পেপার বিছিয়ে নামাজে অংশ নিতো অনেক মুসল্লি।

তবে এবারের পরিস্থিতি একেবারে ভিন্ন। করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে নারায়ণগঞ্জ সহ সারা দেশে ঈদগাহ ময়দানে এবং ফাঁকা ময়দানে ঈদের নামাজ আদায় না করে নিজ নিজ মহল্লার মসজিদে নামাজ আদায়ের নির্দেশ দেয় ধর্ম মন্ত্রণালয়। যে কারণে ঘরের দরজায় ঈদ কড়া নাড়লেও মাঠ প্রস্তুত করতে কোনো ব্যস্ততা নেই। আনা হয়নি আধুনিক প্রযুক্তির তাবু তৈরির সরঞ্জাম। পুরো মাঠ এখন ফাঁকা। যেখানে ছুটোছুটি আর খেলাধুলায় মেতে আছে শিশুরা। অপরদিকে সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্স মাঠে আগাছায় ভরে গেছে। বৃষ্টির পানিতে মাঠটি এখন একাকার। ২১ মে বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা যায় এমন চিত্র।

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কারণে এবার বৃহৎ ঈদ জামাত আদায় থেকে বঞ্চিত হলেও নিজেদের নিরাপত্তায় সেটি মেনে নিয়েছে নগরবাসী। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে লাখো মানুষের সমাগমে মাঠে নামাজ আদায় না করার পক্ষেই মতামত তাঁদের। সেই সাথে সব ঠিকঠাক হয়ে গেলে আগামী ঈদে আবারো লাখো মুসল্লি একত্রে নামাজ আদায় করার প্রত্যাশা করেন সবাই।


বিভাগ : ধর্ম


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও